টাকা আত্মসাৎ ও জালিয়াতির অভিযোগ প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে, বিভাগীয় মামলাসহ শাস্তিমূলক বদলী ঠেকিয়ে পুরাতন কর্মস্থলে ফিরতে অপতৎপরতা

Mohammad UllahMohammad Ullah
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  04:59 PM, 24 October 2021
টাকা আত্মসাৎ ও জালিয়াতির অভিযোগ প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে, বিভাগীয় মামলাসহ শাস্তিমূলক বদলী ঠেকিয়ে পুরাতন কর্মস্থলে ফিরতে অপতৎপরতা

টাকা আত্মসাৎ ও জালিয়াতির অভিযোগ প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে,

বিভাগীয় মামলাসহ শাস্তিমূলক বদলী ঠেকিয়ে পুরাতন কর্মস্থলে ফিরতে অপতৎপরতা

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

কক্সবাজারের চকরিয়ায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির স্বাক্ষর জাল ও শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে জোরপূর্বক টাকা আদায়ের অভিযোগে অভিযুক্ত এক প্রধান শিক্ষক ফের ওই স্কুলে বদলী হতে অপতৎপরতা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে কৈয়ারবিল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

জানা যায়, গত ২০১৯ সালে কৈয়ারবিল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রাশেদুল আনোয়ার বাদী হয়ে প্রধান শিক্ষক এজিএম সেলিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবার একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এ বিষয়ে সরেজমিন তদন্ত করে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ঘটনার সত্যতা পায়। পরে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলাসহ বমুবিলছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শাস্তিমূলক বদলী করা হয়।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রাশেদুল আনোয়ার বলেন, প্রধান শিক্ষক এজিএম সেলিম উদ্দিনের অন্যত্র বদলীর দুই বছরের মাথায় ফের পুরাতন কর্মস্থলে বদলী হয়ে আসার জন্য জোর তদবীর চালাচ্ছে। ওই প্রধান শিক্ষক আমার স্বাক্ষর জালিয়াতি করে বেতন সিট তেরী করে টাকা উত্তোলন করেন। একইভাবে ছাত্র-ছাত্রীদের টিসি বাবদ ৫২০ টাকা করে আদায় করে। এমনকি উক্ত টাকার হিসাব কমিটি বরাবরে উপস্থাপন না করে তিনি নিজে আত্মসাৎ করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর চট্রগাম বিভাগের উপপরিচালক ড. শফিকুল ইসলাম বলেন, পুরাতন কর্মস্থলে ফেরার কোন সুযোগ নেই। তার বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা এখনো বহাল রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :