চকরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে তথ্য গোপন করে ৩ মামলার আসামী নৌকা পেতে মরিয়া

Mohammad UllahMohammad Ullah
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  12:24 PM, 23 October 2021
চকরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে তথ্য গোপন করে ৩ মামলার আসামী নৌকা পেতে মরিয়া

চকরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে তথ্য গোপন করে ৩ মামলার আসামী নৌকা পেতে মরিয়া

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আওরঙ্গজেব বুলেটের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন, মারামারি, সরকারী জমি দখল ও কাজে বাঁধাদানের অভিযোগে ৩টি মামলা রয়েছেন। এসব মামলা থাকলেও তথ্য গোপন করে নৌকা পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন তিনি। এ নিয়ে উপজেলার আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, গত ২০১৬ সালে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওরঙ্গজেব বুলেট নৌকা নিয়ে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হয়েছিলেন। ওই নির্বাচনে তিনি চতুর্থ হন। তার এই চরম ভরাডুবির কারণে এলাকার আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা হতাশ হয়েছিলেন। তার বিরুদ্ধে দলীয় পদবী ব্যবহার করে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। ২০১৮ সালে সরকারী বনবিভাগের জমি দখল ও কাজে বাঁধাদানের অভিযোগ এনে চট্টগ্রামের পদুয়া রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক মো. ফাহিম মাসউদ বাদী হয়ে চকরিয়া থানায় একটি (জি আর-২৫/১৮) মামলা দায়ের করেন। একইভাবে ২০২০ সালে তার বিরুদ্ধে উপজেলার কাকারা ইউনিয়নের বার আউলিয়া নগরের বাসিন্দা ছলিম উল্লাহ বাদী হয়ে হত্যাচেষ্টা ও মারামারি মামলা দায়ের করেন। এর আগে কক্সবাজারের নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতে একটি (এসটি মামলা-১২৪) চলমান রয়েছে।
এদিকে আওরঙ্গজেব বুলেটের বিরুদ্ধে নিয়মিত মাদক গ্রহণের অভিযোগও রয়েছে। মাদক সংগ্রহের টাকা যোগাড় করতে তিনি বিভিন্ন ধরনের অপকর্মের সাথে জড়িত বলেও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ইউনিয়ন পর্যায়ের বেশকয়েকজন নেতাকর্মী জানান।
ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি নুরুল আবছার বলেন, আওরঙ্গজেব বুলেট তার বিভিন্ন অপকর্ম আড়াল করে জেলা আওয়ামীলীগের নেতাদের ভুল বুঝিয়ে নৌকা প্রতিক পেতে উঠেপড়ে লেগেছেন।
অপরদিকে তার অপকর্মের ফিরিস্তি আবেদন আকারে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে বলেও স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানান।
এ বিষয়ে জানতে লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আওরঙ্গজেব বুলেটের মোবাইল ফোনে কল দিলে বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

আপনার মতামত লিখুন :