পুলিশের সোর্স পরিচয়ে বেপরোয়া বেলায়েত, মানুষকে হয়রানির অভিযোগ

।। একাত্তর২৪.নেট।।।। একাত্তর২৪.নেট।।
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  12:32 AM, 21 November 2020

নিজস্ব প্রতিবেদক
কক্সবাজারে প্রশাসন ও পুলিশের সোর্স পরিচয়ে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে শহরের আদর্শগ্রামের বেলায়েত হোসেন এক ব্যক্তি। নারী নির্যাতন, চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন মামলার আসামী বেলায়েত জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের র্সোস পরিচয়ে এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের পাশপাশি নিরীহ লোকজনকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানী করছে বলে অভিযোগ করেছেন কক্সবাজার শহরের কলাতলী আদর্শগ্রাম সমাজ কমিটির সভাপতি মোঃ নাছির উদ্দিন। অভিযুক্ত বেলায়েত ওই এলাকার সিরাজ আহমদের পুত্র।আদর্শগ্রাম সমাজ কমিটির সভাপতি মোঃ নাছির উদ্দিন জানান, বেলায়েত হোসেন মহেশখালী থেকে এসে আদর্শগ্রামে সরকারি জায়গা দখল করে বসবাস শুরু করেন। শুধু তাই নয়, সরকারি জমি দখল করে তা বিক্রি করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন, সরকারি সম্পদ আত্মসাৎ করেছেন। খোদ বহুল আলোচিত ৫১ এক প্লটের জায়গা দখল করে নিজে বাড়ি করেছে এবং জায়গা বিক্রি করেছে। উচ্চ আদালতের রায়কে পুঁজি করে গোপনে এসব জায়গা দখল করেছে বেলায়েত। মোঃ নাছির উদ্দিন অভিযোগ করেন, জায়গা দখল নয়; প্রভাব বিস্তার করতে বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়েছে বেলায়েত। এলাকার কিছু বখাটে ছেলেদের ভিড়িয়ে বাহিনী গঠন করে চুরি-ডাকাতি, ছিনতাই, মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি, জমি দখল, নারী নির্যাতনসহ বিভিন্ন অপরাধ কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে। এসব অপরাধ কর্মকান্ড করত জেলা প্রশাসনের কর্মচারী ও পুলিশ প্রশাসনের কতিপয় অসাধু সদস্যের সাথে সখ্যতা গড়ে তুলে তাদের বিভ্রান্ত করেন। এভাবে পিবিআই এর জমি অধিগ্রহন প্রকল্পে জেলা প্রশাসনের ভূমি অধিগ্রহন শাখার কর্মকর্তা কর্মচারিদের বিভ্রান্ত করে জালিয়াতির মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বেলায়েতসহ তার সহযোগিরা। পিবিআই এর জমি অধিগ্রহণের জাল-জালিয়াতির চক্রের মূলহোতাও বেলায়েত। ওই ঘটনায় দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ধারায় একটি মামলা আদালতে চলমান আছে। দুদকের তালিকাভূক্ত এক আইনজীবী ও কলাতলীর এক ভূমিদস্যুর আশ্রয়-প্রশ্রয় নিয়ে জেলা প্রশাসনের কতিপয় কর্মচারীর সাথে সখ্যতা সৃষ্টি করে জেলা প্রশাসনের ভূমি অধিগ্রহন শাখা, উপজেলা ভূমি অফিস, রাজস্ব শাখাসহ বিভিন্ন দফতরে দালালি করছে। অন্যদিকে বর্তমানে পুলিশে নতুন পদায়ন হওয়া সদস্যদের নতুন করে বিভ্রান্ত করা শুরু করেছে এই দালাল বেলায়েত। ইতিমধ্যেই নতুন বেশ কিছু পুলিশ সদস্যকে বিভ্রান্ত করে মিথ্যা মামলায় লোকজনকে হয়রানী শুরু করেছে বেলায়েত। একই সাথে এসব পুলিশকে ব্যবহার করে সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে কলাতলী বাইপাস সড়কে জমি দখলে মেতে উঠেছে বেলায়েত বাহিনী। ঢাকাতেও বেলায়েতের বিরুদ্ধে দুটি মামলা চলমান রয়েছে বলে জানা গেছে। আদর্শগ্রাম সমাজ কমিটির লোকজন জানিয়েছেন, বেলায়েত একজন দুর্দান্ত প্রকৃতির ভূমিদস্যু, প্রতারক, দালাল ও সন্ত্রাসী। প্রতারণার মাধ্যমে টাকা ও জমি হাতিয়ে নেয়া, ভূমি অফিসে দলিল-খতিয়ান জালিয়াতি, সন্ত্রাসী বাহিনী গঠন করে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালানো, জেলা প্রশাসনের কর্মচারী ও পুলিশ সদস্যদের বিভ্রান্ত করে সাধারণ মানুষকে হয়রানী করে ফায়দা লুটে নেয়া বেলায়েতের প্রধান কাজ। শুধু বিভিন্ন মানুষের জমি দখলই নয়, খোদ আশ্রয়দাতা ফুফু মাজেদার জমি দখলে নিতেও ভাড়াটে লোকজন নিয়ে দফায় দফায় হামলা চালাচ্ছে সে। পুলিশের সাথে সখ্যতা আছে উল্লেখ করে দিনে-রাতে বাধা উপেক্ষা করে দখলীয় জমিতে নির্মাণ কাজ চালাচ্ছে। বেলায়েতের কর্মকান্ডে পুরো এলাকায় অস্থিরতা বিরাজ করছে জানিয়ে কলাতলী আদর্শগ্রাম সমাজ কমিটির সভাপতি মোঃ নাছির উদ্দিন জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনকে দালাল বেলায়েত থেকে সর্তক থাকা এবং বেলায়েতের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানিয়েছেন। অভিযোগের ব্যাপারে জানতে বেলায়েত হোসেনের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেন নি। তবে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) বিপুল চন্দ্র দে জানান-থাবায় দালালের কোন স্থান নেই। কেউ যদি পুলিশের সোর্স পরিচয়ে অবৈধ কাজ করে তাহলে তদন্ত করে তাকে অাইনের অাওতায় অানা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :